Notice BD
All Notice in Bengali

ব্লগের আর্টিকেল SEO কিভাবে করবো? (SEO bangla tutorial)

0 85

আপনারা যারা ব্লগার আছেন তারা হয়তো জানেন ব্লগে আর্টিকেল দেখার সময় অন পেজ এসইও (On page SEO) করা জরুরি। যদি ব্লগের আর্টিকেল লেখার সময় এসইও (SEO) না করেন, তাহালে গুগল বা সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পেজে দেখাবে না। (SEO bangla tutorial)

এতে করে গুগল বা সার্চ ইঞ্জিন থেকে অসংখ্য ফ্রি অর্গানিক ট্রাফিক বা ভিজিটর পাবেন না। তাই আমি আজকের এই আর্টিকেলে বলবো ব্লগে আর্টিকেল লেখার সময় কিভাবে On page SEO করতে হয়। (On page SEO bangla tutorial).

ব্লগের আর্টিকেল সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (search engine optimization) করা নির্ভর করে কীওয়ার্ড (keyword) এবং সম্পর্ন কৌশলের উপর। এজন্য আর্টিকেল অন পেজ এসইও করার জন্য কিছু বিষয় জানতে হবে।

এসইও (SEO) কি? (What is SEO)

SEO বা সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এমন একটি কৌশল বা পদ্ধতি যা ব্যবহার করে ব্লগের আর্টিকেল google search এর প্রথম পেজে আনা যায়। এবার মানুষ যখন আপনার ব্লগের সাথে মিল রেখে কোনো বিষয় লিখে সার্চ দিবে তখন google আপনার ব্লগের আর্টিকেল সর্চ রেজাল্টে দেখিয়ে দিবে।

যার ফলে আপনি ব্লগে প্রচুর পরিমানে অর্গানিক ট্রাফিক বা ভিজিটর পেয়ে যাবেন। seo শুরু গুগল সার্চের জন্য করতে হয় সেটা কিন্তু না, আপনি yahoo, bing সার্চ ইঞ্জিনের জন্য ও এসইও করতে পারবেন।

আশাকরি এসইও কি এবং ব্লগের আর্টিকেলে কেন  seo করতে হবে সেটার ব্যাপারে কিছুটা জ্ঞান দিতে পেরেছি। চলুন এবার keyword সম্পর্ক জেনে আসি। (On page SEO bangla tutorial)

কীওয়ার্ড (keyword) কি? (What is keyword)

ব্লগ বা আর্টিকেলের সাথে জড়িত টফিক (topic) বা বিষয় গুলোর সাথে জড়িত শব্দকে keyword বলে। আরো সহজে বলতে গেলে আপনি যে আর্টিকেলটি লিখছেন সেই বিষয়ের সাথে জড়িত শব্দকে কীওয়ার্ড (keyword) বলে।

আমরা সব সময় চেষ্টা করি এই keyword গুলোর উপর নির্ভর করে google, yahoo এবং bing সার্চ ইঞ্জিনে আমাদের লেখা আর্টিকেল গুলোকে রেংক (rank) করাতে চেষ্টা করি। যখন আমাদের লেখা আর্টিকেলের টফিক বা keyword দিয়ে কেউ সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ করবে তখন search engine যেন আমাদের লেখা আর্টিকেল তাদের প্রথম পেজে দেখায়।

যখন আর্টিকেল সার্চ ইঞ্জিনে প্রথমে দেখাবে তখন ফ্রিতে প্রচুর ভিজিটর পাবেন। তাই যদি সার্চ ইঞ্জিন থেকে অসংখ্য ভিজিটর বা ট্রাফিক পেতে চান তাহালে ব্লগের আর্টিকেলে কিওয়ার্ড (keyword) ব্যবহার করুন।

  • কম্পিউটারে স্ক্রিনশট কিভাবে নিতে হয়

এবার আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে ব্লগের আর্টিকেলের মধ্যে কোথায়, কিভাবে এবং কতবার keyword ব্যবহার করবো? চলুন নিচে থেকে জেনে আসি keyword density সম্পর্কে।

Keyword density কি?

Keyword density এমন একটি সংখ্যা বা পরিমাপ যার উপর নির্ভর করে আমরা ব্লগের আর্টিকেলের মধ্যে কীওয়ার্ড ব্যবহার করি। একটা উদাহরণ দিলে আপনারা পরিস্কার ভাবে বুঝতে পারবেন।

মনে করুন, আপনি What is SEO নিয়ে একটি আর্টিকেল লিখছেন। আপানার বেঁচে নেওয়া কিওয়ার্ড গুলো হল SEO in bangal, SEO কিভাবে শিখবো, SEO করার নিয়ম, এসইও টিউটোরিয়াল, এসইও শিখতে কত দিন লাগে, এসইও এর গুরুত্ব।

এবার আপনার বেঁচে নেওয়া keyword গুলো ব্লগের আর্টিকেলের মধ্যে কতবার উল্লেখ করবেন বা কত বার লিখবেন সেই পরিমাপকে keyword density বলে। সব সময় keyword density মেনে আর্টিকেল লেখা জরুরি।

আপনি যদি মন মতো আর্টিকেলের মধ্যে keyword লিখেন তাহালে google search algorithm আপনাে আর্টিকেলকে panalize করতে পারেন। যায় জন্য আর্টিকেলটি google search এ দেখাবে না।

সব সময় আর্টিকেলের মধ্যে যতটুকু প্রয়োজন ঠিক ততোটুকু keyword ব্যবহার করবেন। মনে রাখবেন, keyword density সব সময় ১% থেকে সর্বচ্চ ১.৫% এর মধ্যে keyword ব্যবহার করবেন। কখনো এর বেশি ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন না।

ব্লগের আর্টিকেল SEO কিভাবে করবো? (SEO bangla tutorial)

প্রথমে বলেছি ব্লগের আর্টিকেল On page SEO বা SEO করার সময় জরুরি বিষয় হল keyword এর ব্যবহার করা। আপনারা যদি আর্টিকেল লেখার সময় সঠিক ভাবে SEO ব্যবহার করেন, তাহালে আপনার ৭০% on page seo বা seo এর ব্যবহার করে হয়ে যাবে।

তাহালে চলুন নিচে থেকে জেনে আসি keyword এর মাধ্যমে কিভাবে seo এর ব্যবহার করতে হবে এবং keyword এর বাহিরে আর্টিকেলে কি কি seo করতে হবে।

(১) আর্টিকেলের title এ keyword ব্যবহার করা

আপনব কোন বিষয়ে আর্টিকেল লিখেছেন সেটা যেন আর্টিকেলের টাইটেল (title) পড়ে সহজে ভিজিটর্সরা (visitors) বুঝতে পারে। এবার আর্টিকেলের মধ্যে টার্গেট keyword অবশ্যই রাখতে হবে।

এতে সার্চ ইঞ্জিন এবং ভিজিটর্সরা আপনার টাইটেল পড়ে সহজে বুঝতে পারবে আর্টিকেলটি কিসের উপর লেখা হয়েছে। আপনি আমার এই আর্টিকেলের টাইটেলর শেষে দেখতে পাচ্ছেন SEO bangla tutorial লেখা আছে, মানে এটা আমার keyword.

তাছাড়া আমি এই keyword এর সাথে আর একটি কিওয়ার্ড টার্গেট করেছি সেটা হল “SEO কিভাবে করবো” এটা। এই ভাবে আপনার টার্গেট করা কিওয়ার্ড সব সময় আর্টিকেলের টাইটেলে রাখবেন।

(২) আর্টিকেলের url address এ keyword ব্যবহার করুন

আপনি ব্লগার  বা ওয়ার্ডপ্রেস যেটাই ব্যবহার করেন না কেন আর্টিকেল লেখার সময় আর্টিকেলের url address edit করার অপশন পেয়ে যাবেন।

আপনি url address এডিট (edit) করে সেখানে টার্গেট করা keyword বসিয়ে দিবেন। সাথে সাথে আর্টিকেলের url address সব সময় ছোট করে দিবেন।

(৩) আর্টিকেল ১৫০০ শব্দের (words) বেশি লিখবেন

ব্লগের আর্টিকেল সব সময় ১৫০০ শব্দের বেশি লেখার চেষ্ট করবেন। যদি পারেন তাহালে ২৫০০ শব্দের মধ্যে লেখার চেষ্টা করবেন। যত বেশি details লিখবেন ততই বেশি গুগল সার্চ ইঞ্জিন আপনার লেখাকে পছন্দ করবে।

গুগল সব সময় লং কিওয়ার্ড (long keyword) কে বেশি value দেয় এবং এর মাধ্যমে প্রচুর ট্রাফিক পাবেন। তাছাড়া ভিজিটররা যত বেশি সময় ধরে আপনার ওয়েবসাইটের মধ্যে থাকবে ততই বেশি ওয়েবসাইট রেংক (rank) করবে। আর যদি পারেন তাহালে ২৫০০ থেকে ৩০০০ শব্দের বেশি আর্টিকেল লেখার চেষ্টা করবেন।

(৪) টার্গেট করা keyword এর সঠিক ব্যবহার করুন

প্রথমে বলেছি on page seo করে আর্টিকেল লেখার সময় seo এর জন্য keyword এর সঠিক ব্যবহার করাটা জরুরি। যে keyword টার্গেট করে আর্টিকেল লিখছেন সেটা অবশ্যই প্রথম প্যারাগ্রাফ ও শেষ প্যারাগ্রাফ এবং মাঝ খানে কয়েক বার ব্যবহার করতে হবে।

এতে সার্চ ইঞ্জিন অনেক সহজে বুঝতে পারবে আপনার টার্গেট করা keyword কি। তাছাড়া আর্টিকেলটি সঠিক ভাবে সার্চ রেজাল্ট রেংক করবে। মনে রাখবেন কখনো বেশি বেশি keyword আর্টিকেলে ব্যবহার করবেন না।

(৫) আর্টিকেলে H tag ব্যবহার করুন

H tag বলতে H1, H2, H3, H4 এই ট্যাগ গুলো আর্টিকেলের মধ্যে ব্যবহার করতে হবে seo এর জন্য। H tag গুলো ভিজিটর্সদের আর্টিকেল গুলো পড়তে অনেক সহজ করে দেয় এবং আর্টিকেল স্পষ্ট ও সুন্দর দেখায়।

তাছাড়া আর্টিকেল লেখার সময় অবশ্যই মিনিমাম একটি H tag এর মধ্যে keyword ব্যবহার করবেন। এতে সহজে সার্চ ইঞ্জিন আপনার আর্টিকেলের বিষয় বুঝতে পারে।

(৬) আর্টিকেলে ছবি (photo) ব্যবহার করুন

আর্টিকেল যখন ব্লগে পাবলিশ করবেন তখন অবশ্যই আর্টিকেলের সাথে মিল রেখে মিনিমাম একটি ছবি (photo) আপলোড করবেন। এসইও এর দিক থেকে আর্টিকেলের সাথে ছবি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

ছবি আপলোড করার পরে অবশ্যই ছবির alt tag অপশনে গিয়ে আপনার টার্গেট করা keyword (On page SEO bangla tutorial) ব্যবহার করবেন। এতে কেউ যখন সার্চ ইঞ্জিনে ঔ keyword লিখে ছবি সার্চ করবে তখন আপনার ছবি দেখতে পাবেন।

(৭) আর্টিকেলের মধ্যে inter linking করুন

আর্টিকেল SEO করার জন্য inter linking একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কিন্ত ৭০% লোকেরা আর্টিকেলের মধ্যে inter linking ব্যবহার করে না। যার ফলে তারা google সহ অন্য search engine গুলোতে আর্টিকেল রেংক করতে পারে না।

আপনি যদি আর্টিকেল সঠিক ভাবে seo করে সার্চ ইঞ্জিনে রেংক করাতে চান তাহালে অবশ্যই inter linking করতে হবে। অনেকে হয়তো inter linking কি এবং কিভাবে করবো সেটা জানতে চাচ্ছেন?

inter linking কি? (What is inter linking)

inter linking হল এমন একটি পদ্ধতি যার মাধ্যমে আমরা ব্লগের একটি আর্টিকেলের সাথে আর একটি url link এর মাধ্যমে যুক্ত করতে পারি। আপনার হয়তো উপরে লক্ষ্য করেছেন আমার এই আর্টিকেলে দুইটা লিংক দিয়েছি।

সেই লিংক দুইটা হল আমার ব্লগের লেখা অন্য আর্টিকেলের লিংক। আমি এই লিংক দুইটা দিয়েছি আমার এই আর্টিকেলের সাথে মিল থাকা অন্য দুইটি আর্টিকেলের লিংক।

inter linking কিভাবে করবো?

আপনি যে ব্লগে আর্টিকেল পাবলিশ করার সময় আপনার টফিকের সাথে মিল থাকা আপনার ব্লগে যে আর্টিকেল গুলো আগে পাবলিশ করেছিলেন সেই আর্টিকেলের লিংক কপি করে এই আর্টিকেলে বসিয়ে দিবেন।

তাহালে আপনার আর্টিকেলের সাথে inter linking হয়ে যাবে। মনে রাখবেন ইন্টারনাল লিংক এসইও এর জন্য খুবই জরুরি।

শেষ কথা

তাহালে আমরা জানলাম ব্লগের আর্টিকেল SEO কিভাবে করবো? (SEO bangla tutorial) এর ব্যাপারে। আপনারা যদি আমার এই পদ্ধতি অনুসারণ করে আর্টিকেল seo করেন তাহালে আশাকরি গুগলে সার্চ লিস্টে ৫ নম্বর এর মধ্যে থাকবেন ইনশাআল্লাহ।

Leave A Reply
error: Content is protected !!